ডাক্তারের অবহেলায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যু

men-and-women-symbols.jpgবাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর বাউফলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গতকাল মঙ্গলবার কর্তব্যরত ডাক্তার ও নার্সদের অবহেলায় ফাতেমা বেগম নামক এক প্রসূতী মায়ের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা বিক্ষোভ মিছিল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনের রাস্তা অবরোধ করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
ফাতেমা উপজেলার মহাশ্রাদ্ধী গ্রামের রিক্সা চালাক আ: রহিম মিয়ার স্ত্রী। মৃত. ফাতেমার স্বামী আ: রহিম মিয়া জানান, তার সন্তান সম্ভাবা স্ত্রী ফাতেমা বেগম তীব্র পেটের ব্যাথা অনুভব করলে গত সোমবার বেলা ১১ টার দিকে তাকে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ০৭ নং বেডে ভর্তি করান। এসময় হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার মাহাবুব বিশ্বাস, নার্স  মরিয়াম আক্তার রেখা, জোছনা ও কোহিনুর তার স্ত্রীকে দেখে তার স্ত্রী’র সিজারিয়ান অপারেশন করানোর কথা বলেন এবং এজন্য তারা ২০ হাজার টাকা দাবী করেন ও অপারেশনের জন্য অই+ (এবি পজেটিভ) রক্ত সংগ্রহের কথা বলেন। কিন্তু রিক্সা চালক রহিম মিয়ার পক্ষে এতো টাকা জোগাড় করা সম্ভব নয় বলে সে শুধুমাত্র এক ব্যাগ রক্ত  সংগ্রহ করে উক্ত ডাক্তারের কাছে গেলে ডাক্তার টাকার জন্য তার স্ত্রী’র কোন চিকিৎসা করেননি। আজ (মঙ্গলবার) রাত ২টার দিকে ফাতেমা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লেও কোন নার্স বা ডাক্তার তাকে দেখতে আসেন নি। পরে রাত ৩টার দিকে উক্ত হাসপাতালে ভর্তি কৃত জনৈক রোগী রহিমা বেগম বাধ্য হয়ে ফাতেমার মৃত. ছেলে সন্তান প্রসব করান। এরপর ফাতেমার অবস্থা আশংকাজনক হয়ে পড়লে স্বামী রহিম মিয়া ও হাসপাতালের অন্যান্য রোগীরা নার্স ও ডাক্তারদের একাধিকবার ডাকতে গেলেও তারা কোন কর্ণপাত করেন নি। এমতবস্থায় আজ ভোর রাত ০৪ টার দিকে অতিরিক্তি রক্তক্ষরণে ফাতেমা মৃত্যুর  কোলে ঢলে পরেন।    এঘটনায় মৃত. ফাতেমার স্বামী আ: রহিম মিয়া বাদী হয়ে কর্তব্যরত ডাক্তার মাহাবু বিশ্বাস ও নার্স  মরিয়াম আক্তার রেখা, জোছনা ও কোহিনুরকে বাদী করে বাউফল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এব্যাপারে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ফাতেমার মৃত্যু হয়েছে। বাউফল উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা এ.বি.এম. সাদিকুর রহমান  জানান, এব্যাপারে ০৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে, কমিটির রিপোর্ট অনুসারে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য