আলোকযাত্রা ভোলা দলের সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ

নাজিউর রহমান ডিগ্রী কলেজের পাঠাগার মিলনায়তনে আলোকযাত্রা দলের সদস্যবৃন্দ

ভোলা: আলোকযাত্রা ভোলা দলের সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) এ উপলক্ষে ভোলার পরানগঞ্জে নাজিউর রহমান ডিগ্রী কলেজ পাঠাগার মিলনায়তনে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় দলের কাজ আরও সক্রিয় করা এবং সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর বিষয়ে অালোচনা হয়। সভায় কলেজের ছাত্রছাত্রীরা অংশ নেয়। আলোকযাত্রা দলের কার্যক্রমে তারা একমত পোষণ করে এবং দলকে আরও সক্রিয় করতে সম্মত হয়।

এসময় দলের কার্যক্রম ও উপকূলের সামগ্রিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেন উপকূল-সন্ধানী সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম মন্টু। তিনি বলেন, নিজেদের প্রয়োজনেই উপকূলের স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ছেলেমেয়েদের সমৃদ্ধ হতে হবে। চারপাশের জ্ঞান আহরণ করতে হবে, পাশাপাশি পরিবেশ বিষয়ে আরও সচেতন হতে হবে। দলীয় এবং ব্যক্তিগত পর্যায়ে চর্চার মধ্যদিয়ে তারা জ্ঞান আহরণ করতে পারে। তারা দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ করতে পারে, গাছের চারা রোপণ করতে পারে, শুদ্ধ বাংলাচর্চা করতে পারে, অনিয়মিত ছাত্রছাত্রীদের স্কুল-কলেজে উপস্থিত করার উদ্যোগ নিতে পারে, স্কুল-কলেজের শ্রেণীকক্ষ ও মাঠ পরিস্কার করতে পারে। এভাবে স্কুল-কলেজ পড়ুয়ারা নিজেদের সাধ্য অনুযায়ী বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশ নিতে পারে।

সভায় উপস্থিত নাজিউর রহমান ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক ও সাংবাদিক জুন্নু রায়হান বলেন, এটা ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। এ উদ্যোগের মাধ্যমে তোমরা নিজেদের সমৃদ্ধ করতে পারো। ছাত্র জীবনে তোমরা যেসব চর্চা করবে, ভবিষ্যতে সেগুলো তোমাদেরই কাজে লাগবে। কলেজের পক্ষ থেকে আলোকযাত্রা দলের কার্যক্রম পরিচালনায় সব ধরণের সহায়তা করা হবে।

আলোকযাত্রা ভোলা দলের দলনেতা-১ ও নাজিউর রহমান ডিগ্রী কলেজের ছাত্র মো. রিয়াজ বলেন, আলোকযাত্রা দল ব্যতিক্রমী কিছু করতে চায়। আমরা সবাই মিলে ভালো কিছু কাজ করতে পারি, যা আমাদের জীবনে আলো ফেলবে। আমরা সদস্য সংগ্রহ অভিযান চালাবো। সদস্য সংখ্যা বাড়াবো। সবাইকে সক্রিয়ভাবে এগিয়ে আসার আহবান জানাচ্ছি।

//প্রতিবেদন/২০০৭২০১৭//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য