বিজ্ঞানী পিসি রায়ের ১৫৪তম জন্ম বার্ষিকী ২ আগস্ট

বিজ্ঞানী আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র রায়পাইকগাছা (খুলনা) : ২ আগস্ট জগৎ বিখ্যাত বিজ্ঞানী আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র রায়ের ১৫৪তম জন্ম বার্ষিকী। যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে তার জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষ্যে খুলনা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও পাইকগাছা উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় বিজ্ঞানীর জন্মস্থান পাইকগাছার রাড়ুলীতে দিনব্যাপী কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে।কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে স্যার পি, সি রায়ে প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, কর্মময় জীবনের উপর আলোচনাসভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সকাল ১০টায় উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান ও ১২টায় আলোচনায় সভায় সভাপতিত্ব করবেন খুলনা জেলা প্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামাল। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন জাতীয় সংসদ সদস্যা খুলনা-৬ এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ নূরুল হক। সম্মানিত অতিথি খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুস সামাদ। বিশেষ অতিথি খুলনা পুলিশ সুপার মোঃ হাবিবুর রহমান, পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যডভোকেট স.ম. বাবর আলী, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর সহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা ও জন প্রতিনিধিবৃন্দ।

বিজ্ঞানী আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র রায় ১৮৬১ সালের ২ আগষ্ট খুলনা জেলার পাইগাছা রাড়ুলী গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। পিতা হরিশচন্দ্র রায় চৌধুরী ও মাতা ভুবন মোহনী দেবী। প্রফুল চন্দ্র পিতার প্রতিষ্ঠিত স্কুলে বাল্য শিক্ষা লাভ করেন। প্রফুল চন্দ্রের পিতা মাতা স্থায়ীভাবে কলকাতায় বসবাস শুরু করলে তিনি ১৮৭১সালে হেয়ার স্কুলে ভর্তি হন ১৮৭৪ সালে এ্যালবার্ড স্কুলে ভর্তি হন এবং স্কুল থেকে এনট্রাস পাশ করেন। তিনি ১৮৯১ সালে মেট্রোপলিটন ইনিস্টিটিউট থেকে এফ, এ পাশ করেন। বিএ পড়ার জন্য প্রেসিডেন্সি কলেজে ভর্তি হন।

১৮৮২ সালে গিলক্রাইস্ট বৃত্তি লাভ করে ইংল্যান্ডের এডিরবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি  হয়ে ১৮৮৫ সালে বিএসসি ডিগ্রি লাভ করেন। ১৮৮৭ সালে মৌলিক গবেষনামুলক প্রবন্ধে ডিএমসি উপাধি লাভ করেন এবং একই বছরে এডিসবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যামিক্যাল সোসাইটি সহ সভাপতি নির্বাচিত হন। এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানজনক ডক্টরেট ডিগ্রী নিয়ে ভর্তি হয়ে ১৮৮৫ সালে বিএ ডিগ্রী লাভ করেন। ১৮৮৭ সালে মৌলিক গবেষনামুলক প্রবন্ধে ডিএমসি উপাধি লাভ করেন এবং এডিসবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যামিক্যাল সোসাইটির সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন।

এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মান জনক ডক্টরেট ডিগ্রি নিয়ে ১৯৮৮ সালে ইউরোপ ঘুরে কলিকাতায় পৌছান। তিনি ১৮৮৯ সাল থেকে ১৯১৬ সাল পর্যন্ত ২৭ বছর প্রেসিডেন্সি কলেজ এবং ১৯৩৬ সাল পর্যন্ত ২০ বছর বিজ্ঞান কলেজে পালিত অধ্যাপক হিসবে শিক্ষকতা করেন। ১৯১২ সালে লন্ডন ডারহার্ম বিশ্ববিদ্যালয় তাকে সম্মান জনক ডক্টরেট উপাধী প্রদান করেন। ১৮৯৫ সালে তিনি মার্ককিউরাস নাইট্রাইট আবিষ্কার করেন।

১৮৯২ সালে মাত্র ৮০০ টাকা মুলধন নিয়ে বেঙ্গল ক্যামিক্যাল প্রতিষ্ঠা করেন। কোম্পানিটির নাম কারণ করা হয় দি বেঙ্গল কেমিক্যাল এন্ড ফার্মাসিটিক্যাল। ১৯৩৭ সালে মানিকতলায় স্যার প্রফুল্ল চন্দ্র রিসার্ট  ল্যাবরেটরি প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৩৪ সালে আচার্য্যদেব খুলনার সোনাডাঙ্গায় বেকার যুবকদের কর্মস্থানের জন্য প্রফুল্ল চন্দ্র কটন মিল লিঃ প্রতিষ্ঠা করেন। দেশভাগের পর এ, পি, সি কটন মিলের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় খুলনা টেক্সটাইল মিল।

১৯০৮ সালে রাড়ুলীতে সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি বাগেরহাটের পি, সি কলেজ, খুলনা সিমেন্ট্ররি রোডে এ, পি, সি শিশু বিদ্যালয় সহ বিভিন্ন স্থানে অসংখ্যা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা ও অনুদান প্রদান করেন। পি, সি, রায়ের কর্মকান্ডে লন্ডনের ডারহাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং ভারতবর্ষের মহীশুর, বেনারস ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসচূক ডক্টরেট উপাধিতে ভুষিত করেন।

ব্রিটিশ সরকার ১৯১২ সালে তাকে সি, আই, ই এবং ১৯২৯ সালে নাইট উ্পাধিতে ভুষিত করেন। ১৯৪৪ সালের ১৬ জুন ৮২ বছর বয়সে আচার্য্যদেব শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

//প্রকাশ ঘোষ বিধান/ উপকূল বাংলাদেশ/পাইকগাছা-খুলনা/০১০৮২০১৫//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য