শের-ই-বাংলার ৫৩তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

সাতুরিয়ায় শের-ই-বাংলার মৃত্যুবার্ষিকীর আলোচনাকাউখালী (পিরোজপুর) : অবিভক্ত বাংলার সাবেক মুখ্যমন্ত্রী শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হকের ৫৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ২৭ এপ্রিল সোমবার শের-ই-বাংলার জন্মস্থান রাজাপুরের সাতুরিয়া গ্রামে শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হক রিসার্চ ইনষ্টিটিউট উদ্যোগে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণী ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট সমাজ সেবক ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম রেজাউল করিম প্রতিষ্ঠিত সাতুরিয়া গ্রামে শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হক রিসার্চ ইনষ্টিটিউট প্রাঙ্গনে ইনস্টিটিউটের সভাপতি কে এম আবদুল করিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ঝালকাঠি জেলা পরিষদ প্রশাসক সরদার মো: শাহ আলম।

বক্তব্য দেন (ভিডিও কনফারেন্স) শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হক রিসার্চ ইনষ্টিটিউট’র প্রতিষ্ঠাতা ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম রেজাউল করিম।

শেরে-এ-বাংলার সাথে তার জীবনের স্মৃতিকথা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথি হিসেবে রাজাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো: মনিররুজ্জামান,রাজাপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজু, সাতুরিয়া ইউনিয়নের সমাজসেবক ও রাজনীতিবিদ মো: আ: সোবাহান খান।কাউখালি সদর ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুর রশিদ মিল্টন, ঝালকাঠি পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর মো: রূস্তম আলী চাষী, মোসলেম আলী খান ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান নিরব মল্লিক ও নির্বাহি পরিচালক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু প্রমুখ।

৫৩ তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে বর্তমান প্রজন্মের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে শের-এ-বাংলার আদর্শে উজ্জীবিত করার লক্ষ্যে শের-ই-বাংলা এ কে ফজলুল হক রিসার্চ ইনষ্টিটিউট উদ্যোগে মহান নেতা শের-এ-বাংলা এ কে ফজলুল হক এর শিক্ষা জীবন, মহান নেতা শের-এ-বাংলা এ কে ফজলুল হক এর রাজনৈতিক জীবন মহান নেতা শের-এ-বাংলা এ কে ফজলুল হক এর কর্ম জীবনের উপর রচনা প্রতিযোগীতার বিজয়ীদের মাঝে পুরূষ্কার বিতরন করেন অনষ্ঠানের প্রধান অতিথি সহ সম্মানিত অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে ১০ জন বিভিন্ন পর্যায়ের প্রতিযোগীকে সমিতির পক্ষ থেকে পুরূষ্কৃত করা হয়। প্রথম পুরুস্কার ল্যাপটপ পেয়েছে দৈনিক ইত্তেফাকের কাউখালী সংবাদদাতা রবিউল হাসান রবিন।

//রবিউল হাসান রবিন /উপকূল বাংলাদেশ/কাউখালী-পিরোজপুর/২৭০৪২০১৫//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য