দুর্নীতির প্রতিবাদ জানাল কপোতাক্ষ তীরের মানুষ

tala-satkhira-picture-kapotakha-18-05-142.jpgতপন চক্রবর্ত্তী, তালা Θ প্রচন্ড তাপের মধ্যে রাস্তায় দাঁড়িয়ে মানববন্ধন করে দুর্নীতি-অনিয়ম ও লুটপাটের প্রতিবাদ জানালো কপোতাক্ষ তীরের মানুষ।

রোববার (১৮ মে) সকালে চারটি সংগঠনের ব্যানারে তালা উপ-শহরে দু’ঘন্টা ব্যাপি অনুষ্টিত মানববন্ধন তারা এ প্রতিবাদ জানায়। এতে অন্ত্যজ সম্প্রদায়সহ কপোতাক্ষ তীরের শত শত মানুষ অংশগ্রহন করে। এ মানববন্ধনে কপোতাক্ষ নদ খনন প্রকল্পের সঠিক বাস্তবায়ন ও জাতীয় বাজেটে অন্ত্যজ-দলিতদের জন্য বিশেষ বরাদ্দের দাবী জানানো হয়।

এরআগে সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি দেওয়া হয়। পরে মানববন্ধন শেষে একই দাবীতে বে-সরকারি সংগঠন ভূমিজ ফাউন্ডেশন হলরুমে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্টিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভূমিজ ফাউন্ডেশন’র নির্বাহী পরিচালক অচিন্ত্য সাহা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, কপোতাক্ষ নদ খনন প্রকল্প সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। বর্তমানে খননের নামে লুটপাট চলছে। এ লুটপাট বন্ধ না হলে প্রতি বছরের মতো এবারও কপোতাক্ষ তীরের কয়েক লাখ মানুষ স্থায়ী জলাবদ্ধতার কবলে পড়বে।

tala-satkhira-picture-kapotakha-18-05-14.jpgবক্তারা বলেন,‘জলাবদ্ধতার কারণে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় অন্ত্যজ সম্প্রদায়ের মানুষ। এ জন্য কপোতাক্ষ নদ খনন সঠিক ভাবে বাস্তবায়ণ করতে হবে। খননে লুটপাট বন্ধ করতে প্রধানমন্ত্রীর জরুরী হস্তক্ষেপের দাবী জানান বক্তারা। এছাড়াও মানববন্ধনে বক্তারা জাতীয় বাজেটে অন্ত্যজ-দলিতদের জন্য বিশেষ বরাদ্দ’র দাবী জানান।

রিজিওনাল অন্ত্যজ ফোরাম, কেন্দ্রীয় অন্ত্যজ পরিষদ, নারী অন্ত্যজ পরিষদ ও ভূমিজ ফাউন্ডেশন’র আয়োজনে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বেসরকারি সংস্থা ভূমিজ ফাউন্ডেশন’র নির্বাহী পরিচালক অচিন্ত্য সাহা, দলিত-এর পরিচালক স্বপন দাশ, প্রবীন রাজনীতিবিদ প্রদিপ মজুমদার, ওয়াকার্স পার্টির জেলা সম্পাদক মোঃ মহিবুল্লাহ মোড়ল, উপজেলা পানি কমিটির সাধারণ সম্পাদক মীর জিল্লুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মীর জাকির হোসেন, রুপালী সংস্থার পরিচালক শফিকুল ইসলাম, যুগের যাত্রী পরিচালক ইমদাদুল হক প্রমুখ।

পরে সংগঠন গুলোর পক্ষে থেকে স্বারকলিপি প্রদান ও সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

/তপন চক্রবর্ত্তী/উপকূল বাংলাদেশ/তালা-সাতক্ষীরা/১৮০৫২০১৪//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য