সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগ নেতাকে হত্যার চেষ্টা, গ্রেফতার ৩

greftre-news.jpgডেস্ক উপকূল বাংলাদেশ Θ সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সুমনকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় তিন যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যার চেষ্টায় ব্যবহৃত দুটি রক্তমাখা রাম দা, চারটি লোহার রড ও একটি হরিণের চামড়া।রোববার (১১ মে) সকালে শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এরা হলো- সাতক্ষীরা শহরের মুনজিতপুরের এবাদুল ইসলামের ছেলে আবুল কালাম, একই গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে ছাকিব হোসেন ও শহরের কাছারিপাড়ার সৈয়দ হেলালের ছেলে ফাহিম হোসেন।

এ ঘটনায় সুমনের বাবা রফিকুল ইসলাম মোড়ল বাদী হয়ে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাইদুর রহমান অপুকে প্রধান আসামি করে ১৯জনের নামে সাতক্ষীরা সদর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে, রোববার সকালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আনোয়ার হোসেন সুমনকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আবুল কাশেম জানান, ছাত্রলীগ নেতা সুমনকে হত্যা প্রচেষ্টার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া মামলার প্রধান আসামি সাইদুর রহমান অপুর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে না পেলেও হত্যার চেষ্টায় ব্যবহৃত দুটি রক্তমাখা রাম দা, চারটি লোহার রড ও একটি হরিণের চামড়া উদ্ধার হয়েছে।

শনিবার রাত ৯টার দিকে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের পার্শ্ববর্তী শহীদুলের মোড়ে জেলা ছাত্রলীগের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের বোটানি বিভাগের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সুমনের ওপর সাঈদুর রহমান অপুসহ ফাহিম, মহসিন, কালাম, ফারুক, শহীদুল, জুবায়ের, রবিন ও মজিদ শেখসহ ১৫/১৬ জন রাম দা, লাঠি ও ছুরি দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

এসময় তাকে মৃত ভেবে ফেলে রেখে গেলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। রাতেই তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও রোববার সকালে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

/সৌজন্যে-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম/১১০৫২০১৪//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য