মিরসরাইয়ে ২৫ হাজার গাছ পুড়ে ছাই

images-forest-fire.jpgদুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে পুড়ে গেছে বনায়নের ২৫ হাজার গাছ। গত শনিবার রাতে লাগা আগুন সোমবারও জ্বলছিল বলে জানিয়েছেন স্থানীয় লোকজন।
সোমবার সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বন বিভাগের সংশ্লিষ্ট কোনো কর্মকর্তা আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত বাগান পরিদর্শনে আসেননি বলে অভিযোগ করেছেন বাগানের অংশীদারেরা।
জানা গেছে, উপজেলার গোভানীয়া বিট (মহামায়া লেক) এলাকায় বন বিভাগ ২০০৬ সালে ন্যাড়া পাহাড় সবুজ বনায়নের আওতায় আনতে অংশীদারি ভিত্তিতে বনায়ন শুরু হয়। পাহাড়ে ১২ জন অংশীদার নিয়োগ করে বনায়ন করা হয়।
সামাজিক বনায়নের অংশীদার এনায়েত হোসেন বলেন, ‘আমার জীবনের সহায়সম্বল বলতে এ বাগান। অনেক স্বপ্ন নিয়ে পাহাড়ে এ বাগান করেছিলাম। ২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত বাগানে প্রায় ২০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। সরকারের শর্তানুযায়ী ৩০ হাজার বনজ গাছ এবং শখের বশে দুই হাজার ফলদ গাছ লাগানো হয়েছিল। কিন্তু গত শনিবার দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে বাগানের সব গাছ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।’
আরেক অংশীদার বিপুল দে জানান, বাগানের সব গাছ পুড়ে গেলেও বন বিভাগের কোনো কর্মকর্তা পরিদর্শনে আসেননি।
মিরসরাই রেঞ্জের গোভানিয়া বিট কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান বলেন, মহামায়া এলাকায় বাগান পুড়ে যাওয়ার বিষয়টি শুনেছেন। যারা বাগানে আগুন দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। - সূত্র দৈনিক প্রথম আলো

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য