‘আলোকযাত্রা’ ঢাকা দল গঠিত, কার্যক্রম শুরু

আলোকযাত্রা ঢাকা দলের সদস্যবৃন্দ

ঢাকা : উপকূলের স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল মেধাবিকাশ সংগঠণ ‘আলোকযাত্রা’ ঢাকা দলের ২৫ সদস্যের কমিটি গঠিত হয়েছে। ৩১ মার্চ ২০১৭ শুক্রবার ঢাকার কল্যাণপুর পোড়াবস্তিতে কমিউনিটি রিসোর্স সেন্টার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক সভায় উপস্থিত সদস্যদের সম্মতিতে এ কমিটি গঠিত হয়।

কমিটি পরিচালনার জন্য তিনজনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। এরা হলো, স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্র ছাইফুল ইসলাম মাছুমকে দলনেতা-১ (টিম লিডার), ঢাকা কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র বিল্লাল হোসেনকে দলনেতা-২ (ডেপুটি টিমলিডার) এবং  বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের দর্শন বিদ্যার ছাত্র শিমু আক্তারকে দলনেতা-৩ (ডেপুটি টিমলিডার)।

আলোকযাত্রা ঢাকা দলের সভা

সভায় ‘আলোকযাত্রা’ ঢাকা দলের ২০১৭ সালের কর্মপরিকল্পনা তৈরি করা হয় এবং তা সদস্যদের সম্মতিতে তা অনুমোদিত হয়। আলোকযাত্রা ঢাকা দল এই বছরের জুন ও ডিসেম্বরে দু’টি বুলেটিন প্রকাশ, ৫ই জুন বিশ পরিবেশ দিবস পালন, ১টি কর্মশালার আয়োজন, ১টি প্রকৃতি দেখা কর্মসূচি এবং একটি পাঠচক্র আয়োজনের পরিকল্পনা নিয়েছে।

কমিটি গঠণের পর আলোকযাত্রা ঢাকা দলের সদস্যরা চারটি ভাগে বিভক্ত হয়ে কল্যাণপুর পোড়াবস্তির বিষয়ভিত্তিক তথ্য সংগ্রহ করে। ‘মহাসেন’ দলের সদস্যরা বস্তির স্বাস্থ্য ও শিক্ষা, ‘রোয়ানু’ দলের সদস্যরা জীবিকা ও এনজিও কার্যক্রম, ‘সিডর’ দলের সদস্যরা বসবাসের সংকট, যোগাযোগ ও যাতায়াত এবং ‘আইলা’ দলের সদস্যরা বস্তির পানি ও বিদ্যুৎ সংকট বিষয়ক তথ্য সংগ্রহ করে। প্রতিটি দলের পক্ষ থেকে সদস্যরা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরে। সদস্যরা বস্তির তথ্য-উপাত্ত নিয়ে পরে প্রতিবেদন তৈরি করবে।

আলোকযাত্রা ঢাকা দলের সভায় বক্তব্য দিচ্ছে এক পড়ুয়া

আলোকযাত্রা ঢাকা দলের সদস্যগণ হচ্ছেন: সাদমান সাঈদ, ইশতিয়াক আহমেদ, উজ্জ্বল কান্তি নাথ, মো. হাবিবুর রহমান, তাসিনুল হক বাপ্পি, মো. সাজ্জাদুর রশিদ, কাকলি আক্তার কান্তা, মুহাম্মদ সাগর হোসেন সবুজ, নিয়াজ মোর্শেদ, সাথী আক্তার, আইরিন আক্তার, তৌহিদ রায়হান, মরিয়ম খানম, মো. সাফাউর রহমান মাসুম, ওমর ফারুক, এ কে এম মাহামুদুল হক, মো. মাসুদ আলম, মো. শেফাউল মুন্সী, মো. আশিক রহমান, নাবিহা আক্তার রাদিতা, মেজবাউল হক এবং মো. সাদমান সাকিব।

কমিটি গঠণের আগে সভায় উপকূলের পড়ুয়াদের নিয়ে ‘আলোকযাত্রা’ দল গঠণের প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করেন উপকুল-সন্ধানী সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম মন্টু। তিনি বলেন, সমৃদ্ধ জীবন গড়ার লক্ষ্যে পড়–য়াদের জীবনদক্ষ হয়ে গড়ে ওঠা খুবই জরুরি। এজন্য তাদের মাঝে অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিতকরণ ও সচেতনতা জাগিয়ে তোলা প্রয়োজন। আলোকযাত্রা দলের সদস্যরা লেখালেখির মাধ্যমে লেখার চর্চা করবে। এ ছাড়াও বিভিন্ন ধরণের সামাজিক কর্মকান্ডে অংশ নেবে। ঢাকাসহ উপক‚লের বিভিন্ন এলাকায় আলোকযাত্রা দলের সদস্যরা কাজ করছে।

আলোকযাত্রা ঢাকা দলের সদস্যরা কল্যাণপুর পোড়াবস্তিতে তথ্য সংগ্রহ করছে

অনলাইন নিউজপোর্টাল একুশ শতক-এর প্রকাশক রাশিদুল হাসান বলেন, প্রতিটি কাজের জন্য চাই জ্ঞান। সময়টা আমাদের সম্পদ। সময়কে কাজে লাগিয়ে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। কিন্তু আজকের প্রজন্মের হাতে প্রযুক্তি আসায় তারা জ্ঞান আহরণের বদলে সময়ের অপচয় করঝে। জীবনদক্ষ হয়ে বেড়ে উঠতে জ্ঞান অর্জনের কোন বিকল্প নেই। তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তারা এগিয়ে যেতে পারে অনেক দূর।

এছাড়াও সভার সূচনায় ছাইফুল ইসলাম মাছুম ও কল্যাণপুর পোড়াবস্তির সিবিও সম্পাদক মো. হান্নান আকন্দ বক্তব্য দেন। মাঠে তথ্য সংগ্রহে যাওয়ার আগে বস্তির সার্বিক অবস্থা তুলে ধরে মো. বিল্লাল হোসেন। আলোচনার প্রতিটি পর্বে অংশগ্রহনকারীরা মুক্ত আলোচনায় অংশ নেয়।

// প্রতিবেদন/৩১০৩২০১৭//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য