ভোলায় আলোকযাত্রা দলের কমিটি গঠণ ও কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন

আলোকযাত্রা দল ভোলা

ভোলা : উপকূলের স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল মেধাবিকাশ কেন্দ্র ‘আলোকযাত্রা’ দলের নতুন কমিটি গঠিত হয়েছে দ্বীপ জেলা ভোলায়। ২০ সদস্যের এ কমিটির নেতৃত্বে রয়েছে তিন পড়-য়া। কমিটির কার্যক্রম তদারকিতে রয়েছে ৫ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদ। কমিটি গঠনের পর ২০১৭ সালের কর্মপকিল্পনা নির্ধারণ করে আলোকযাত্রা দল।

কমিটি গঠণ উপলক্ষে শনিবার (৪ মার্চ) ভোলা সদরের টবগী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তথ্য-প্রযুক্তি কক্ষে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক অসীম আচার্য্য, উপকূল-সন্ধানী সাংবাদিক ও আলোকযাত্রা দলের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী রফিকুল ইসলাম মন্টু, পড়ুয়াদের পক্ষে মো. রিয়াজ, আল-আমিন ও রাবেয়া বসরি প্রিয়া বক্তব্য দেয়।

সভায় স্কুল-কলেজ পড়ুয়ারা নিজেদের উদ্যোগে করতে পারে, এমন কিছু কাজ নির্ধারণ করা হয়। এগুলোর মধ্যে রয়েছে, দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ, শুদ্ধ বাংলা চর্চা, সংস্কৃতি চর্চা, খেলাধূলা চর্চা, তথ্য-প্রযুক্তি চর্চা, গাছের চারা লাগানো ও পরিচর্যা, শিষ্টাচার শিক্ষা, প্রকৃতি পাঠ ও প্রকৃতি দেখা, দিবস পালন, শিক্ষা উপকরণ বিনিময়, পাঠাগার স্থাপন ও পাঠচক্র এবং পরিচ্ছন্নতা অভিযান। ২০১৭ সালে বছর জুড়ে এই কাজগুলো করার পরিকল্পনা তৈরি করে পড়ুয়া।

বৈঠক করছে আলোকযাত্রা দলের সদস্যরা

সভায় আলোকযাত্রা দলের সদস্যদের ভোটে মো. রিয়াজকে দলনেতা-১, মো. জিহাদকে দলনেতা-২ এবং রিমা আক্তারকে দলনেতা-৩ নির্বাচিত করা হয়। অপর সদস্যরা হলো, তাছলিমা আক্তার, রাবেয়া বসরি (প্রিয়া), রাবেয়া বেগম, আশিকুর রহমান, পাপিয়া রানী, মিতু আক্তার, মো. আল-আমিন, আঁখি আক্তার, মো. মোখলেশ, জুঁই আক্তার, মো. পারভেজ, মো. রাকিব, মো. রুবেল, মো. শুভ, মো. সজীব, রূপা আক্তার ও মীম আক্তার।

আলোকযাত্রা দলের কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়ক হিসাবে শিক্ষক ও অভিভাবকদের পক্ষ থেকে ৫জনকে দলের উপদেষ্টা পরিষদে রাখা হয়। এরা হলেন, মো. ইসমাইল, শাহনেওয়াজ চন্দন, অসীম আচার্য্য শান্ত, রফিকুল ইসলাম ও রেশমা আক্তার।

//প্রতিবেদন/০৭০৩২০১৭//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য