শ্যামনগরে চারণ সাংবাদিক মোনাজাতউদ্দিনের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণসভা

শ্যামনগরে মোনাজাতউদ্দিনের স্মরণ সভা

শ্যামনগর, সাতক্ষীরা : ‘‘সাংবাদিক মোনাজাতউদ্দিন ছিলেন সাংবাদিকতা জগতের এক উজ্জলতম নক্ষত্র। তিনি ছিলেন সৎ, নির্ভিক, কঠোর পরিশ্রমী। তার পরিচিতি ছিল গ্রামীণ সাংবাদিক হিসেবে।’’

শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকালে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলা প্রেসক্লাবের আয়োজনে গ্রামীণ সাংবাদিকতার শিক্ষক চারণ সাংবাদিক মোনাজাতউদ্দিনের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে প্রেসক্লাব ভবনে আলোচনাসভায় বক্তারা এ সব কথা গুলো বলছিলেন।

বক্তারা আরও বলেন, সাংবাদিক মোনাজাতউদ্দিন সংবাদের খোঁজে বেরিয়েছেন বাংলাদেশের পথে প্রান্তরে এবং অজ পাঁড়া গায়ে। সকল ভয়ভীতিকে উপেক্ষা করে দুনীতি, অনিয়মের খবর প্রকাশ করে সাংবাদিকতার উজ্জল নক্ষত্র হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন। তিনি সব সময় খবরের গভীরে প্রবেশ করে অন্ধকারকে আলোয় এনেছেন। পেশাগত জীবনে তিনি সত্য প্রকাশে কখনও আপোষ করেননি। কোন ঘটনা ঘটলে তা প্রকাশে যথেষ্ট তৎপর ছিলেন। বক্তারা তার পথ, তার নীতি আদর্শ অনুসরণে সকলকে আহবান জানান।

শ্যামনগর প্রেসক্লাবের কার্যকরী পরিষদ সদস্য রনজিৎ বর্মনের সঞ্চালনায় ও শ্যামনগর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জাহিদ সুমনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন শ্যামনগর উপজেলা প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা এস এম আফজালুর রহমান, আবু সাইদ,সুন্দরবন সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক এস কে সিরাজ, প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী মুরাদ, প্রেসক্লাব সদস্য আনিসুজ্জামান সুমন, প্রেসক্লাবের অফিস সম্পাদক মারুফ হোসেন, সদস্য এস এম মিজানুর রহমান, আবু মুছা প্রমুখ। এ আয়োজনের উদ্যোক্তা ছিল কোষ্টাল জার্নালিষ্ট ফোরাম অব বাংলাদেশ।

আলোচনা শুরুর আগে মোনাজাতউদ্দিন স্মরণ এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এবং বক্তব্য শেষে মোনাজাত অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কালীগঞ্জ জামিয়া কাদেরিয়া তাহেরিয়া আলিয়া মাদ্রাসার সহ সুপার মাওঃ মোহাম্মদ আরিফ বিল্লাহ।

//প্রতিবেদন/৩১১২২০১৬//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য