ভোলায় যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত

বিজয় দিবসে ভোলায় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনভোলা : ভোলায় যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হল ৪৫তম  মহান বিজয় দিবস। দিবসটি উপলক্ষে বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) ভোর সাড়ে ৬টা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ভোলা  জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক কার্যলয়ের সামনে স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ করা হয়।

এসময় উস্থিত থেকে পুষ্পমাল্য দেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, আওয়ামী লীগ জেলা আ’লীগের নেতৃবৃন্দ, ভোলা জেলা প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠন।

এরপরে জেলা প্রশাসক কর্যলয় প্রঙ্গনে ৩১ বার  তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের শুভ সূচনা করা হয়। সব সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত, বেসরকারি ভবনও প্রতিষ্ঠানে  জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে।

সকাল সাড়ে আটটায় ভোলা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে জেলা প্রশাসক মো: সেলিম রেজা আনুষ্ঠানিক ভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলনকরেন। পরে  কুচকাওয়াজ প্রদর্শন ও শিশুদের ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়।

এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মো:মনিরুজ্জামান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার দোস্ত মাহামুদ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ প্রশাসক মো: আব্দুল মমিন টুল ভোলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ পারভীন আক্তার, পৌর মেয়র মো: মনিরুজ্জআমান মনির, ভোলা সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মো: মোশারেফ হোসেন সহ বিভিন্ন সরকারি বে-সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা  উপস্থিত ছিলেন।

পরে মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, আনসার-ভিডিপি, বিএনসিসি, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের, বাংলাদেশ স্কাউট, রোভার স্কাউট, গার্লস গাইড কর্তৃক কুচকাওয়াজ এবং শরীরচর্চা প্রর্দশন করা হয়।একই স্থানে শিশুদের জন্য বিভিন্ন খেলাধুলার আয়োজন করা হয়।

বেলা ১১টা থেকে ১২টা ভোলা শহরের বিভিন্ন  সিনেমা হলগুলোতে শিক্ষার্থীদের বিনা টিকিটে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে।

এর পরে বেলা সাড়ে এগারটার দিকে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সন্তানদের  সংবর্ধনা প্রদান  করা হবে ।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে শহরের প্রধান প্রধান  সড়ক ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে  জাতীয় পতাকাসহ বিভিন্ন পতাকা লাইটিং করে সজ্জ্বিত করা হয়েছে। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে শিশুদের জন্য সকল শিশুপার্ক উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।

এছাড়াও রাতে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে আলোচনা সভা ওসংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ছে।

//আদিল হোসেন তপু/ উপকূল বাংলাদেশ/ভোলা/১৬১২২০১৫//

montu

লেখক: montu

পাঠকের মন্তব্য