কুয়াকাটায় শীতের আমন্ত্রণ, সেজেছে সৈকত

কুয়াকাটা রাখাইন সম্প্রদায়ের বৌদ্ধমন্দিরের সামনে মূর্তিকুয়াকাটা : সমুদ্রের বিশাল সম্ভাবনাময় পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা শীত মৌসুমে পর্যটকদের বরণে বর্ণীল সাজে সেজেছে। এবার শীত মৌসুমের শুরুতেই প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরে পেয়েছে এ পর্যটন কেন্দ্রটি। ইতোমধ্যে ভ্রমন পিপাষু পর্যটকদের সেবা নিশ্চিত করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে পর্যটক নির্ভর ব্যবসায়ীরা। এমনকি আগত পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ট্যুরিস্ট পুলিশও প্রস্তুত রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিগত দিনে যোগাযোগ ব্যবস্থা পর্যটকদের অনুকূলে ছিল না। গত কয়েক বছর ধরে বিরাজমান রাজনৈতিক অস্থিরতা। আশানুরূপ নিরাপত্তাও পায়নি পর্যটকরা। যার কারণে গত বছর শীত মৌসুমেও তেমন পর্যটক টানতে পারেনি এ পর্যটন কেন্দ্রটি। চলতি মৌসুমে কলাপাড়া-কুয়াকাটা সড়কের ২২ কিলোমিটার পথে তিনটি নদীতে সেতুর নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। ইতোমধ্যে শিববাড়িয়া নদীতে শেখ রাসেল সেতু উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে আন্ধারমানিক নদীতে নির্মিত শেখ কামাল সেতু। মাঝখানের সোনাতলা নদীতে শেখ জামাল সেতুর নির্মান কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এদিকে তেমন কোন রাজনৈতিক অস্থিরতা না থাকায় ব্যাপক পর্যটক সমাগমের আশা করছেন কুয়াকাটার ব্যবসায়ীরা।

ব্যাপক পর্যটকদের আগমনের প্রত্যাশায় আবাসিক হোটেল মোটেল ও রেঁস্তরার পাশাপাশি পর্যটন স্পটগুলোতে সাজগোজের কাজ চলছে ধুমছে। সবাই পর্যটকদের বরণ করে নিতে এ যেন মহাজজ্ঞে ব্যস্ত। পর্যটক সেবাদানে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি প্রতিষ্ঠান শীত মৌসুমকে উপলক্ষ্য করে বাড়িয়েছেন বিনিয়োগ। তাদের পেশায় নতুন নতুন সংযোজন ও বিনিয়োগ পর্যটকদের আগের যেকোন সময়ের তুলানায় আকর্ষনীয় করে তোলার চেষ্টা করছেন। তাদের আশা কোন বাধা ছাড়াই এবার অসংখ্য পর্যটক আসবেন কুয়াকাটা।

আগত পর্যটকদের সেবা নিশ্চিত করতে ট্যুরিজম বিজনেসের সাথে যুক্ত রয়েছেন কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট সেন্টার, দিগন্ত ট্যুরিজম, ফ্রেন্ড্স ট্যুরিজম, সী-ট্যুরিজম, কুয়াকাটা ট্যুরিজম, কুয়াকাটা বীচ চ্যুরিজমসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। পর্যটকদের মনযোগাতে নানামুখি আয়োজন রয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলোর।

কুয়াকাটা সৈকতের পর্যটক গাইড সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ‘কুয়াকাটা সী গার্ল ট্যুরিজমের মালিক ইমরান হোসেন বলেন, ‘আমার টিমে নতুন করে ১০জনকে যুক্ত করে পর্যটকদের গাইড হিসেবে প্রশিক্ষণ দিয়েছি। আশা করছি এবার যেকোন সময়ের তুলনায় পর্যটক বাড়বে।’

পর্যটকদের বিভিন্ন স্পটে ছবিতুলে দেয়া ক্যামেরাম্যান তৈয়বুর রহমান ও আবুল হোসেন রাজু’র সাথে কথা হয়। তারাও জানালেন একই কথা। তৈয়বুর রহমান বলেন, ‘নতুন একটি ক্যামেরা কিনেছি, রাজনৈতিক অস্থিরতা না থাকলে এবার শীত মৌসুমে পর্যটক অনেক বেশি আসবে। আমাদের ছবি তোলার কাজটাও অনেক জমবে।’ সৈকতে শতাধিক ফটোগ্রাফার রয়েছেন। হলুদ রংয়ের জার্সি পরিহিত ইয়াংফোর্স দেখলেই ব্যাতিক্রম হিসেবে যে কারও চোখে পড়বে। সকলের প্রস্তুতি ফটোগ্রাফার তৈয়বুরের মতোই।

পর্যটকদের বিভিন্ন লোকেশনে নিয়ে যেতে সঙ্গী হিসেবে মোটর বাইক নিয়ে আছেন শতাধিক মোটর সাইকেল চালক। ব্লু রংয়ের এ্যাপ্রোণ পরিহিত এসব চালকদের শৃঙ্খলাই অন্য রকম। কেউ নতুন মোটর সাইকেল কিনেছেন। আবার কেউ তার পুরানো মোটর সাইকেলটির ইঞ্জিণের ছোটখাট ত্রুটি সারিয়ে নিয়েছেন। তাদের মধ্যে এ প্রতিনিধি কথা হয় ইসমাইল হোসেনের সাথে। ইসমাইল জানালেন, কুয়াকাটা সৈকতে মোটর সাইকেল চালকদের মধ্যে অনেকের ভিন্ন পেশাও রয়েছে, কিন্তু এবারই ব্যতিক্রম। শীত মৌসুমে অনেক পর্যটক আসবেন এমনটি আশা করে এবার কেউ আর পেশা বদল করেননি।

কুয়াকাটার অন্যতম খাবার হোটেল ‘খাবার ঘর’ এর মালিক সেলিম মিয়া বলেন, ‘ব্যবসায় দীর্ঘদিন বেশ মন্দা যাচ্ছিল। ফেরী তিনটির স্থলে ব্রীজ হয়ে যাওয়ায় এবার লোকশান কাটিয়ে আশা করছি লাভের মুখ দেখব।’ এমন বেশ কয়েকটি খাবার দোকান মালিকের সাথে কথা হয়। এদের মধ্যে হোটেল আপ্যায়ন, হোটেল রাজধানী, হোটেল খেপুপাড়া, হোটেল রুচিতার মালিকও জানালেন একই কথা।

ব্যবসার অবস্থা কেমন যাচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে আবাসিক হোটেল বীচ-হ্যাভেনের জিএম শামিম রেজা রঞ্জু বলেন, এতদিন অপেক্ষায় ছিলাম নির্মাণাধীন ২২ কিঃমিঃ সড়কের সেতু তিনটির কাজ শেষ হলে পর্যটক আসবে। হচ্ছেও তাই। অনেকেই সেতুর কাজ শেষ হয়েছে জেনে আগাম যোগাযোগ করছেন কুয়াকাটায় আসার জন্য। অনেকটা একই সুরে কথা বললেন প্রথম সারির আবাসিক হোটেল কুয়াকাটা ইন্ ইন্টারন্যাশনাল, হোটেল মোহনা, হোটেল বনানী, হোটেল নীলাঞ্জনা, হোটেল সী কুইন, কটেজ সুইট হোমস, হোটেল গ্রেভার ইন, কুয়াকাটা গেষ্টহাউসের ব্যবস্থাপনার সাথে সংশ্লিষ্টরা।

ঢাকার গাবতলী থেকে ছেড়ে আসা পর্যটক সেবায় নিয়োজিত সাকুরা পরিবহনের কুয়াকাটা কাউন্টার ইনচার্জ মোঃ খালেদ জানান, ডিসেম্বরের মধ্যে কলাপাড়া-কুয়াকাটা সড়কের সদ্য নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়া সেতু দু’টির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হলেই তাদের উন্নতমানের একাধিক এসি বাস আসবে কুয়াকাটা। একই কথা জানলেন আরও বেশ কয়েকটি পরিবহন কর্তৃপক্ষ। তাদের অধিকাংশ বাস ছেড়ে আসে রাজধানীর গাবতলী, টেকনিক্যাল এবং ছায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে প্রতিদিন বিকেল থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত।

পর্যটকদের বিনোদন কেন্দ্রখ্যাত ‘কুয়াকাটা স্বপ্নরাজ্য’ এর দায়িত্বে থাকা মো: সোলায়মান বিশ্বাস বলেন, ‘নতুন করে ২৫টি ভাস্কর্য বানানো হচ্ছে। এরমধ্যে হরিণ, কুমির, সুপারম্যান, হাতি, বাঘ ইত্যাদি রয়েছে। এর পাশাপাশি শিশুদের নানা খেলনা ও বড়দের বিভিন্ন বিনোদন রাইড্স দিয়ে সাজান হয়েছে কুয়াকাটা স্বপ্নরাজ্যকে।’ তার মতে বেশ ভাল সারা আছে এবারের শীত মৌসুমে।

আগত পর্যটকদের বিনোদনের জন্য ইতোমধ্যে যুক্ত হয়েছে ‘ইলিশ পার্ক’। সাংবাদিক রুমান ইমতিয়াজ তুষার নির্মাণ করছেন ইলিশ পার্ক। অল্পদিনের মধ্যে শেষ হবে নির্মাণ কাজ। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে খুলে দেয়া হবে পার্কটি।
কুয়াকাটা জাতীয় উদ্যান ও খাজুরা বনাঞ্চলের বিট কর্মকর্তা পলাশ চক্রবর্তী জানান, ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত টানা তিনমাস পর্যটকের সমাগম হতে পারে। কারণ হিসেবে পলাশ চক্রবর্তী বলেন, ‘সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি ও এখানকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অপেক্ষাকৃত ভাল থাকায় কুয়াকাটায় দেশি-বিদেশী পর্যটক এবার বেশি আসবেন।’

কুয়াকাটা হোটেল মোটেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি শফিকুর রহমান চান বলেন, ‘আশা তো করছি এবার শীত মৌসুমে কুয়াকাটায় ব্যাপক পর্যটক আসবে। সে অনুযায়ী আমাদের সব রকম প্রস্তুতিও নেয়া রয়েছে।’

কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশ জোনের এএসপি মীর ফসিউর রহমান বলেন, ‘কুয়াকাটায় পর্যটকদের নিরাপত্তাদানে আমরা বেশ সর্তক রয়েছি। এমনিতেই কুয়াকাটার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বরাবরই ভাল ছিল। বিশেষ করে বিদেশীদের ওপর হামলা ও হত্যাকান্ডের মত ঘটনায় কুয়াকাটা পর্যটন শিল্পে কোন প্রভাব পড়েনি।’

//কাজী সাঈদ/উপকূল বাংলাদেশ/কুয়াকাটা/০৯১২২০১৫//


এ বিভাগের আরো খবর...
উপকূল দিবসের দাবি উপকূল দিবসের দাবি
‘কুকরির জনারণ্যে সম্প্রীতির সুবাতাস’ -আবুল হাসেম মহাজন ‘কুকরির জনারণ্যে সম্প্রীতির সুবাতাস’ -আবুল হাসেম মহাজন
বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক
পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন
উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প
কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’ কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’
শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন
জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল
একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’ একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’
‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার ‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার

কুয়াকাটায় শীতের আমন্ত্রণ, সেজেছে সৈকত
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)