মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলে পরীক্ষামূলকভাবে ভারি নৌ-চলাচল শুরু

মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলে ডেজিং-এর প্রায় দেড় বছর পর পরীক্ষামূলকভাবে ভারি নৌ-চলাচল শুরু হয়েছেরামপাল (বাগেরহাট) : মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলে ডেজিং-এর প্রায় দেড় বছর পর পরীক্ষামূলকভাবে ভারি নৌ-চলাচল শুরু হয়েছে। ৩ অক্টোবর শনিবার সকাল ১০টায় বিআইডাব্লুটিএ-এর চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হক চ্যানেল পরিদর্শন শেষে বিকাল ৩টায় ১০-১১ ফুট ড্রাফট এর ভেসেল চলাচল শুরু হয়।এসময় উপস্থিত ছিলেন বিআইডাব্লুটিএ-এর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী  (ড্রেজিং) এম ফরহাদ উজ জামান, নির্বাহী প্রকৌশলী (ড্রেজিং) মো: তারিকুল হাসান, উপ-পরিচালক আশরাফ হোসেন, মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেল বিশেষজ্ঞ মো: শাহাবুদ্দিন সিকদার,সহকারী প্রককৌশলী আমজাদ হোসেন,দিদার এ আলম, রামপাল উপজেলা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক প্রভাষক মো: বজলুর রহমান, মংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেল রক্ষা কমিটির সাধারন সম্পাদক এমএ সবুর রানা, সিডিপি’র খুলনা বিভাগীয় সমন্বয়কারী এসএম ইকবাল হোসেন বিপ্লব, এইচ এম জুবায়ের মিঠু প্রমুখ।

জোয়ারের সময় দশ থেকে এগারো ফুট মাত্রার ৪টি ভেসেল সহ এক যোগে ছোট বড় নৌ-চলাচল শুরু করে। উল্লেখ্য গত জুন মাসে সরকারের পক্ষ থেকে এই চ্যানেল খুলে দেওয়ার কথা বললেও নানা জটিলতার কারনে বিশেষ নতুন করে পলি জমার কারনে নির্ধারিত সময়ে ড্রেজিং সম্পন্ন করা সম্ভাব হয়নি বলে বিআইডাব্লুটিএ-এর কর্মকর্তারা জানান।

এ পযর্ন্ত প্রায় ৮৫ লাখ কিউবিক ঘন মিটার ড্রেজিং সম্পন্ন হয়। এবং ১০টি ড্রেজার খনন কাজে নিয়োজিত আছে। অন্যদিকে আশেপাশের জলাশয় ও সংলগ্ন খাল সমূহের অবৈধ বাধ উম্মুক্ত ও পলি  অপসারন করা সম্ভাব হয়নি যে কারনে কাংখিত ফলাফল পেতে বেগ পেতে হচ্ছে বিভিন্ন মহলের অভিমত। রামপাল এবং মংলার ৩২টি খালের বাধের অপসারন এবং প্রায় ৩শ টি খালের  ১১৪৮ টি অবৈধ বাধ অপসারন করা হয়নি।

বিআইডাব্লুটিএ-এর চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হক চ্যানেল পরিদর্শন শেষে জানান বর্তমান যে খনন হয়েছে তাতে দিনের বেলা সর্তকতার সাথে ভারী নৌ-যান চলাচল করতে পারবে। তবে দ্রুত খনন কাজ সম্পন্ন করে পুরো মাত্রায় নৌ-চলাচল শুরু হবে।

//এম,এ সবুর রানা/ উপকূল বাংলাদেশ/রামপাল-বাগেরহাট/০৩১০২০১৫//

রফিকুল ইসলাম মন্টু

রফিকুল ইসলাম মন্টু

উপকূল অনুসন্ধানী সাংবাদিক। বাংলাদেশের সমগ্র উপকূলের ৭১০ কিলোমিটার জুড়ে তার পদচারণা। উপকূলীয় ১৬ জেলার প্রান্তিক জনপদ ঘুরে প্রতিবেদন লিখেন। পেশাগত কাজে স্বীকৃতি হিসাবে পেয়েছেন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেকগুলো পুরস্কার।
পাঠকের মন্তব্য