বেড়িবাঁধ কেটে চিংড়ি চাষ, দেখার কেউ নেই

চিংড়ি ঘেরআশাশুনি (সাতক্ষীরা) : আশাশুনিসহ সাতক্ষীরা জেলার পনি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধ কেটে ঘেরে লোনা পানি তুলে চিংড়ি চাষ করা হলেও প্রশাসন থেকে তেমন কোন অগ্রগতি ভূমিকা রাখা হয় না। একশ্রেনীর মৎস্য কর্মকর্তার দুর্নীতির আড়ালে প্রতি বছর অপরিকল্পিতভাবে চিংড়ি ঘের স্থাপন করছে। ফলে সরকার প্রতি বছর লাখ লাখ টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী, সাতক্ষীরা জেলায় ৩৬ হাজার ৭শত ১৭ হেক্টর জমিতে চিংড়ি ঘেরের সংখ্যা প্রায় সাত হাজারের মত। এ পরিমান জমিতে প্রতি বছর কয়েক হাজার মেট্রিক টন চিংড়ি উৎপাদিত হয়। এ থেকে বৈদেশিক মুদ্রা আসে কয়েকশত কোটি টাকার উপরে।

বেসরকারি হিসাব মতে, এ জেলায় কম পক্ষে ৫০ হাজার হেক্টর জমিতে চিংড়ি চাষ হয়ে থাকে। কিন্তু এ সব চিংড়ি চাষ হয় অপরিকল্পিতভাবে। নিয়ম রয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক নদীতে বিশেষ স্থান দিয়ে পানি তুলতে হয় এবং ঘের করার জন্য উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কাছ থেকে অনুমতি নিতে হয়। ঘের মালিকরা সে নিয়ম না মেনে কিংবা পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে সমঝোতার মাধ্যমে ইচ্ছামত বাঁধ কেটে ঘেরে পানি তুলছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের একটি সূত্র জানায়, সাতক্ষীরা পাউবো বিভাগে ১ এর অধীনে বেড়িবাঁধ রয়েছে  ৩৭৭ কিলো মিটার। এ সব বাঁধ মেরামত করতে প্রতি বছর কোটি কোটি টাকা ব্যায় হয়। কিন্তু চিংড়ি চাষের নামে গত ১৫ বছরে বাঁধ কাটা হয়েছে ব্যাপকভাবে। একই ভাবে পাউবোর ০২ এর অধীনে ৪০৮ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের বিভিন্ন স্থান কেটে পানি তোলার সময় মামলা হলেও সুরাহা হয়না সহজে। এ সব মামলা দিনের পর দিন ঝুলে থাকছে।

অভিযোগ রয়েছে, প্রভাবশালীদের সাথে পাউবোর একশ্রেনির কর্মকর্তার যোগসাজসে দায়েরকৃত মামলা অকার্যকর রাখা হয়।

মৎস্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, জেলায় চিংড়ি চাষের ঘের রয়েছে সাত থেকে আট হাজারের মত। এর মধ্যে অধিকাংশ ঘের মালিকের অনুমতি নেই। অবৈধ ঘের স্থাপনের ফলে সরকার প্রতি বছর এ জেলা থেকে দেড় কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে। অথচ স্থানীয় প্রসাশন মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীরা দিনের পর দিন আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়ে উঠছে।

//সচ্চিদানন্দদেসদয়/ উপকূল বাংলাদেশ/আশাশুনি-সাতক্ষীরা/০৭০৪২০১৫//


এ বিভাগের আরো খবর...
বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক
পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন
উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প
কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’ কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’
শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন
জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল
একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’ একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’
‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার ‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার
কুয়াকাটায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত কুয়াকাটায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত
তৃতীয়বারের মত ডিআরইউ অ্যাওয়ার্ড পেলেন রফিকুল ইসলাম মন্টু তৃতীয়বারের মত ডিআরইউ অ্যাওয়ার্ড পেলেন রফিকুল ইসলাম মন্টু

বেড়িবাঁধ কেটে চিংড়ি চাষ, দেখার কেউ নেই
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)