‘সবুজ উপকূল’ পড়ুয়াদের সৃজনশীল মেধার বিকাশ ঘটাচ্ছে

লেখক : সানা উল্লাহ সানু

মাত্র একদিনের প্রশিক্ষণেই একএক জন শিক্ষার্থী পেয়ে গেছে জীবন পরিবর্তনের একটি বিশেষ মন্ত্র। বিদ্যালয়ে নিজেরা গড়ে তুলেছে পত্রিকা তৈরির দল। নিজেদের মধ্যে বন্টন করেছেন দায়িত্ব। কেউ কেউ বনে গেছেন সম্পাদক, কেউ উপ-সম্পাদক, কেউ ডিজাইনার, কেউ প্রতিবেদক, কেউ কার্টুনিষ্ট। ছোটদের হাতে এ যেন বিশাল বড় কর্মযজ্ঞ ! দু’মাস পর পর নিয়মিত বের হচ্ছে ‘বেলাভূমি’র এক একটি নতুন সংখ্যা। ওঠে আসছে চারপাশের নতুন নতুন ঘটনাসহ নিজ ক্যাম্পাসের নানা খবর। এক একটি খবর প্রকাশের সাথে সাথে প্রতিবেদক হয়ে যাচ্ছেন অন্য শিক্ষার্থীদের কাছে স্টার! সত্যিই এক দারুন অভিজ্ঞতা। দেয়ালে টাঙ্গানো সে পত্রিকা পড়ার জন্যও অন্য শিক্ষার্থীদেও চোখে পড়ার মতো দীর্ঘ লাইন। শিক্ষকরাও ছাত্রছাত্রীদের এ কাজ দেখে অভিভূত। তাই প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন এবং ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান ফয়সল আহমেদ রতন ঘোষণা দিয়েছেন, শিক্ষার্থীদের এ চর্চা অব্যাহত দিতে সহায়তা থাকবে ম্যানেজিং কমিটির।

গল্পটা লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার তোরাবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের। স্কুল পড়ুয়া ছেলেমেয়েদের সবুজ সুরক্ষার আহবানের মধ্যদিয়ে ২০১৫ সালের ১২ সেপ্টেম্বর এবং ২০১৬ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছিল, ‘ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক সবুজ উপকূল কর্মসূচি। চলতি ২০১৭ সালেও কমলনগরের ফলকন উচ্চ বিদ্যালয়ে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এই কর্মসূচির মধ্যদিয়ে বিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা লেখালেখির মাধ্যমে সচেতন হয়ে উঠছে।

তবে গল্পের শুরুটা আরও একটু আগে। ছাত্রছাত্রী তো পরের কথা আমরা শিক্ষকদের মধ্যেও অনেকের জীবনে দেয়াল পত্রিকার সাথে কোন পরিচয় ছিল না। উপকূল ঘুরে কর্মরত বরেণ্য সাংবাদিক, উপকূলবাসী যাকে ‘উপকূল বন্ধু’ নামে ডাকে, সেই রফিকুল ইসলাম মন্টু সরজমিনে এসে ছাত্রছাত্রীসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মাঝে দেয়াল পত্রিকার বিষয় এবং তৈরির কৌশল শিখে দিয়েছেন একেবারে হাতেকলমে। সেই থেকে দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ আর লেখালেখির চর্চা শুরু হয়। সবুজ উপকূল কর্মসূচি সেই উদ্যোগকে আরও জোরদার করে।

বাহ্যিক দৃষ্টিতে ‘সবুজ উপকূল’ কর্মসূচি একটি অনুষ্ঠান মাত্র। কিন্তু এ অনুষ্ঠানটি ছাত্রছাত্রীদের মাঝে যে প্রভাব রেখে চলছে, তার বিস্তৃতি অনেক বড়। ছাত্রছাত্রীদের মাঝে এ অনুষ্ঠান ঘিওে তৈরি হয়েছে এ ধরনের কৌতুহল। খুব কাছ থেকেই দেখেছি সে কৌতুহল। তোরাবগঞ্জ বিদ্যালয়ে যে সকল ছাত্রছাত্রী লেখাপড়া করে তাদের নিজেদের ভাবনা পরীক্ষার খাতা ছাড়া অন্য কোথায়ও লিখে প্রকাশ করার সুযোগ ইতোপূর্বে ছিল না। তাছাড়া পরীক্ষায়ও তো একটি নিদির্ষ্ট সিলেবাসে হয়। আমরা জানতামও না যে আমাদের ছেলেমেয়েরা সিলেবাস-ভিত্তিক পাড়ালেখার পরেও সমাজ কিংবা তার চারপাশের পরিবেশসহ নানা ঘটনা নিয়ে ভাবে। আমাদের চোখ খুলে দিয়ে ছাত্রছাত্রীদেরকে মতপ্রকাশের সুযোগ করে দিয়েছে ‘বেলাভূমি’ নামের দেয়াল পত্রিকা।

২০১৫ সালে বেলাভূমি’র একজন সাধারণ লেখক ছিল তোরাবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জুনায়েদ আল-হাবিব, ফাহিম উদ্দিন বাবুল, মোঃ তারেকের মতো শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ে মাত্র ২/৩টি বেলাভূমি’র এ লেখকরা আজ জাতীয় পত্রিকায়ও লিখছে। তাদের মধ্যে জুনায়েদ আল-হাবিবের লেখা ইতোমধ্যে দেয়াল পত্রিকার গন্ডি পেরিয়ে অনলাইন নিউজ পোর্টাল, স্থানীয় সংবাদপত্র এবং জাতীয় সংবাদপত্রেও প্রকাশ শুরু হয়েছে। পড়–য়ারা এলাকার রাস্তা নিয়ে প্রকাশ করছেন প্রতিবেদন। সে প্রতিবেদন দেখে হয়ে যাচ্ছে রাস্তা। সত্যিই অবিশ্বাস্য! কিন্তু ‘বেলাভূমি’  শুরু না হলে কখনো এ জুনায়েদ সৃষ্টি হতো না। ২০১৬ সালেও বের হচ্ছে এমন আরো কয়েকজন। এ সকল শিক্ষার্থীদের লেখার বিষয়গুলো অত্যন্ত মানবিক।

শিক্ষার্থীরা ২০১৫ সালে সবুজ উপকূল কর্মসূচির সময় বিদ্যালয় আঙ্গিনায় শহীদ মিনারের পাশে রোপণ করেছে ৩টি কৃষ্ণচূড়া। তৈরি করেছে একটি ফুলের বাগান। যেগুলো আজ ডালপালা মেলে এক একটি বড় গাছে পরিণত হচ্ছে। তারা ঘোষণা করেছে কৃষ্ণচূড়ার এ চত্তরের নাম দিবে ‘লালসবুজ’ চত্তর।

এতক্ষণ যা বলা হলো, তা একটি স্কুলের গল্প মাত্র। কিন্তু ২০১৬ সালে সবুজ উপকূল নামের কর্মসূচিতে যুক্ত হয়েছে ২৬ উপজেলার প্রায় ৫০টি বিদ্যালয় আর ৬৭ হাজারের মতো শিক্ষার্থী। এ দেয়াল পত্রিকা বা সবুজ উপকূল কর্মসূচি ঘিরে প্রতি বিদ্যালয়ে এ রকম একজন সৃজনশীল ভাবুক তৈরি হলেও ভবিষ্যত উপকূলে যে পরিবর্তন হবে, তার ব্যাপ্তি নিঃসন্দেহে অনেক বড়। পরিবেশ সচেতনার ‘সবুজ উপকূল’ এবং একজন সৃজনশীল মানুষ হিসাবে নিজকে গড়ে তুলতে দেয়াল পত্রিকা ‘বেলাভূমি’ প্রকাশের উদ্যোগ অব্যাহত থাকুক। কেনান অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি, বিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মাঝে সৃজনশীলতা আর নান্দনিকতা তৈরিতে একটি ‘সবুজ উপকূল’ কর্মসূচি অব্যাহত রাখাই যথেষ্ট।

লেখক : সানা উল্লাহ সানু, সম্পাদক, লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর ডটকম


এ বিভাগের আরো খবর...
‘কুকরির জনারণ্যে সম্প্রীতির সুবাতাস’ -আবুল হাসেম মহাজন ‘কুকরির জনারণ্যে সম্প্রীতির সুবাতাস’ -আবুল হাসেম মহাজন
বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক
পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন
উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প
কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’ কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’
শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন
জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল
একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’ একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’
‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার ‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার
কুয়াকাটায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত কুয়াকাটায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত

‘সবুজ উপকূল’ পড়ুয়াদের সৃজনশীল মেধার বিকাশ ঘটাচ্ছে
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)