দেয়াল পত্রিকা প্রকাশিত হলো ভোলার শহীদ সালাম স্কুলে

- প্রতিবেদন উপকূল বাংলাদেশ

দেয়াল পত্রিকা বেলাভূমি হাতে পড়ুয়ারা

ভোলা: কেউ লিখলো জেলেদের জীবন নিয়ে, কেউ লিখলো বাল্যবিবাহ নিয়ে, কেউবা নিজেদের স্কুল আর গ্রামের সৌন্দর্য্য নিয়ে তৈরি করলো প্রতিবেদন। ওরা নিজেরাই লেখক, নিজেরাই সম্পাদক। নিজেরা বিষয় ঠিক করলো, নিজেরাই লিখলো। নিজেদের উদ্যোগেই তৈরি হলো দৃষ্টিনন্দন পত্রিকা। এভাবেই মাত্র দু’ঘন্টার মধ্যেই আত্মপ্রকাশ ঘটলো একটি দেয়াল পত্রিকার।

মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) দুপুরে ভোলা সদরের শহীদ সালাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দেয়াল পত্রিকা ‘বেলাভূমি’ প্রকাশ করতে পেরে বেশ আনন্দিত। ‘তারুন্যের উপকূল’ এ স্লোগান সামনে রেখে এগিয়ে যাবার প্রত্যয় নিয়ে শহরের মত গ্রামের স্কুলের শিক্ষার্থীরাও এ পত্রিকায় লিখলো নানা ধরনের উন্নয়ন, সমস্যা ও সম্ভাবনা নানা খবর।

এ বিদ্যালয় থেকে প্রকাশিত দেয়াল পত্রিকা বেলাভূমি’র প্রথম সংখ্যার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ইনছানা আক্তার চাঁদনী। তাকে সহযোগিতা করে সহপাঠী পড়ুয়ারা। সম্পাদকীয়তে ইনছানা আক্তার লিখেছে, আমরা সহপাঠীরা আজ দেয়াল পত্রিকা প্রকাশের লক্ষ্যে একটি কাসরুমে আলোচনায় বসি। আলোচনার পর আমরা নিজেরাই লেখার বিষয় নির্ধারণ করি। সেই লেখা সম্পাদনার পর তৈরি হয়েছে এই পত্রিকা। এ পত্রিকা আমাদের মেধা বিকাশে সহায়তা করবে।

পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচি সেকায়েপ-এর নিদের্শনায় এ পত্রিকা প্রকাশ করে। পত্রিকাটি তৈরিতে সহযোগিতা করেন উপকূল সন্ধানী সাংবাদিক ও উপকূল জুড়ে দেয়াল পত্রিকা ‘বেলাভূমি’ প্রসারের উদ্যোক্তা রফিকুল ইসলাম মন্টু।

বিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা বিভিন্ন বিষয়ে লিখেছে দেয়াল পত্রিকায়। দশম শ্রেণীর ইনছানা আক্তার চাঁদনী ‘জলপরী এবং কাঠুরের গল্প’, খাদিজা আক্তার মুনিয়া ‘জেলেদের জীবন’, রবিউল ইসলাম ‘মানুষ জাতি’, সুমাইয়া ‘২৬ মার্চ’, শাপলা আক্তার ‘প্রিয় বই বাংলা’, খাদিজা আক্তার লতা ‘প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য’, লিমা আক্তার ‘যোগাযোগ’, জাভেদ হোসেন ‘বিদ্যালয়ের খেলার মাঠ’, সুমাইয়া ‘বীর গাথা’, নবম শ্রেনীর রাবেয়া ‘আমাদের গ্রাম’, খাদিজা অর্থি ‘উপকূলীয় বিপন্নতা’, মাহিন ‘ছাত্র সমাজ’, ৮ম শ্রেনীর আয়শা ‘যৌতুক প্রথা’, হাসিনা ‘বাল্যবিয়ে’ এবং আফরিন আক্তার রিয়া ‘ইন্টারনেট’ বিষয়ে লিখেছে। এসব বিষয়ে প্রতিবেদন লিখতে পেরে তারা দারুন খুশি।

ভবিষ্যতে আরো বেশী বেশী দেয়াল পত্রিকা প্রকাশের আগ্রহের কথা জানিয়ে দেয়াল পত্রিকা মেধা বিকাশে ভূুমিকা পালন করবে বলে মনে করেন তারা। পরে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নিকট দেয়াল পত্রিকা তুলে দেন।

এ সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষন সরল কুমার সরকার, সহকারি শিক্ষক কানাই চন্দ্র দেবনাথ, তাজুল ইসলাম, আবদুল জলিল, আবির হোসেন, ছোটন দাস, শিরিনা নাসরিন, ছোটন সাহা, তোফাজ্জল হোসেন, বেলায়েত হোসেন ও মো: মহিউদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

//প্রতিবেদন/১৬০৪২০১৭//


এ বিভাগের আরো খবর...
২৯ এপ্রিল স্মরণ, উপকূল সুরক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংস্কার দাবি ২৯ এপ্রিল স্মরণ, উপকূল সুরক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংস্কার দাবি
ভয়াল ২৯ এপ্রিল, উপকূলে নিয়ে আসে কষ্ট-বেদনা! ভয়াল ২৯ এপ্রিল, উপকূলে নিয়ে আসে কষ্ট-বেদনা!
উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী, রফিকুল ইসলাম মন্টু’র ছবির গল্প উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী, রফিকুল ইসলাম মন্টু’র ছবির গল্প
উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী শেষ || উপকূল সুরক্ষায় নজরদারি বাড়ানোর তাগিদ বিশিষ্টজনদের উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী শেষ || উপকূল সুরক্ষায় নজরদারি বাড়ানোর তাগিদ বিশিষ্টজনদের
ঢাকার দৃক গ্যালারিতে ৩ দিনব্যাপী উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনীর সমাপ্তি ঢাকার দৃক গ্যালারিতে ৩ দিনব্যাপী উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনীর সমাপ্তি
ঢাকায় উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে রফিকুল ইসলাম মন্টু’র তোলা ছবি ঢাকায় উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে রফিকুল ইসলাম মন্টু’র তোলা ছবি
দৃক গ্যালারিতে চলছে উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী, আজ শুক্রবার শেষদিন দৃক গ্যালারিতে চলছে উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী, আজ শুক্রবার শেষদিন
উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী || উপকূলে নজর বাড়ানোর দাবি দর্শনার্থীদের উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী || উপকূলে নজর বাড়ানোর দাবি দর্শনার্থীদের
রাজধানীর দৃক গ্যালারিতে ৩ দিনব্যাপী ‘উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী’ শুরু রাজধানীর দৃক গ্যালারিতে ৩ দিনব্যাপী ‘উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী’ শুরু
দৃক গ্যালারিতে ‘উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী’ চলবে শুক্রবার পর্যন্ত দৃক গ্যালারিতে ‘উপকূল আলোকচিত্র প্রদর্শনী’ চলবে শুক্রবার পর্যন্ত

দেয়াল পত্রিকা প্রকাশিত হলো ভোলার শহীদ সালাম স্কুলে
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)