‘প্রকৃতি দেখা কর্মসূচি’ পালন করলো আলোকযাত্রা লক্ষ্মীপুর দল

দলবেঁধে প্রকৃতি দেখছে আলোকযাত্রা লক্ষ্মীপুর দলের সদস্যরা

লক্ষ্মীপুর : পরিবেশ সচেতনতার তাগিদ আর প্রকৃতি সুরক্ষার তাগিদ থেকে সরেজমিনে প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ করলো ‘আলোকযাত্রা’ লক্ষ্মীপুর দলের সদস্যরা। তারা প্রকৃতির কাছ থেকে পাওয়া তথ্য নিজেদের খাতায় লিপিবদ্ধ করলো। পরে এ নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনায় উঠে এলো প্রকৃতি ও পরিবেশ সুরক্ষার তাগিদ। নিজের ভেতরেই পরিবেশ রক্ষায় সজাগ হওয়ার আহবান আসে। সকলেই এতে একমত পোষণ করে।

উপকূলের পড়ুয়াদের সৃজনশীল মেধাবিকাশ সংগঠন ‘আলোকযাত্রা’ দলের নিজেদের সাধ্য অনুযায়ী বিভিন্ন ধরণের কর্মকান্ড পরিচালনা করছে। এর মাধ্যমে তাদের সৃজনশীল মেধার বিকাশ ঘটছে, পাশাপাশি পড়ুয়ারা তথ্যসমৃদ্ধ হয়ে বেড়ে উঠছে। আলোকযাত্রা লক্ষ্মীপুর দলের কর্মপরিকল্পনায় মার্চ মাসে প্রকৃতি দেখার বিষয়টি অন্তর্ভূক্ত ছিল। এরই আলোকে ৩০ মার্চ ২০১৭ বৃহস্পতিবার বসন্তে প্রকৃতির এই পালাবদলের চিত্র সরেজমিনে দেখে এলো পড়ুয়ারা।

সরেজমিনে প্রকৃতি দেখার লক্ষ্যে দলের সভা অনুষ্ঠিত হয় লক্ষ্মীপুর শহরের প্রাণকেন্দ্র পি.টি.আই মোড় সংলগ্ন এলাকায় ‘আলোকযাত্রা’ দলের অস্থায়ী কার্যালয়ে। সভায় যোগ দেন আলোকযাত্রা লক্ষ্মীপুরের সদস্যরা। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সদস্যরা প্রকৃতি দেখতে যায় এবং সরেজমিনে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত খাতায় লিপিবদ্ধ করে। চারপাশের অজানা তথ্যগুলো উঠে আসে প্রকৃতি পর্যবেক্ষণে অংশ নেওয়া পড়ুয়াদের দৃষ্টিতে।

প্রকৃতি ঘুরে দেখার পর সদস্যরা অনুভূতি প্রকাশ সভায় মিলিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন আলোকযাত্রা লক্ষ্মীপুর দলের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজ সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মোঃ আমির হোসাইন।

সদস্যদের মধ্যে প্রকৃতি দেখা নিয়ে নিজ অভিজ্ঞতার অনুভূতি প্রকাশ করে দলনেতা-৩ সুচমিতা আক্তার (রিপা) বললো, “প্রকৃতি পর্যবেক্ষণে দেখলাম, চাষের বাগান, পুদিনা পাতা, জাতীয় বৃক্ষ আম গাছ, পুদিনা পাতা, ফসলের মাঠ, ফূলের বাগান, বড় কিছু ভবন এবং বড় একটি জলাশয়। যা এখানে এসে অন্য ভাবে নজরে পড়লো”।

দলনেতা-১ (টিম লিডার) জুনাইদ আল হাবিব প্রকৃতি দেখার অভিজ্ঞতা নিয়ে বললো, “এখন বসন্তের আগমনে চারপাশের পরিবেশ মনোমুগ্ধকর। আসলে সকলের পক্ষে তা অনুভব করা কঠিন। কিন্তু আলোকযাত্রা দল সবার চেয়ে ব্যতিক্রম। নজরে পড়া, পেয়ারা গাছ, আম গাছ, লাউয়ের ক্ষেত, বড় একটি কচুরিপানার পাহাড়ে আবদ্ধ জলাশয় এবং পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার অবনতি”।

সদস্য মহিউদ্দিন তার উপস্থাপনায় উল্লেখ করে, “প্রাকৃতিক দৃশ্যে প্রতিফলিত হয় মানুষ ও প্রকৃতি। কিন্তু চারপাশে তাকালে ময়লার স্তুপ, খোলামেলা ড্রেন। যার দুগন্ধে আমাদের নি:শ্বাস গ্রহনে সমস্যা হয়। আমাদের সমস্যা রুখতে হবে, আমরা সচেতন হয়ে আমাদের পরিবেশ আমরাই সজীব রাখবো।

দলনেতা-২ মোঃ শাহাদাত হোসেন বললো, “প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য্যে আমরা আনন্দিত। এসময় প্রকৃতির অবাক করা দৃশ্য আমার মনকে পরিষ্কার করে দেয়। আমরা এর সঠিক পরিচর্যা করবো”।

দলের আরেক সদস্য নাইমা সুলতানা নদী তার অনুভূতিতে উল্লেখ করে, “প্রকৃতিভ্রমনে আজকের আনন্দ সত্যিই এক সৃষ্টি করা ইতিহাস। ভ্রমনের পথে গাছগুলোতে আসন্ন জৈষ্ঠ্যের ফলও দেখা যায়। বিশেষ করে আম-কাঁঠাল”।

সদস্য আশিকুর রহমানের বক্তব্যে তুলে ধরা হয়, “প্রকৃতি দেখতে গিয়ে খেলার মাঠ, মনোরম পরিবেশ, সুবিশাল জলাভূমি, কর্মজীবী মানুষের ব্যস্ততা, বিভিন্ন ধরণের উদ্ভিদ চৈত্রের দুপুরের মানুষের বিষন্নতা, প্রকৃতির নতুন সাজ দেখা সত্যি আলোকযাত্রার ছায়াতলে এসে বুঝতে পারছি”।

প্রকৃতি দেখা কর্মসূচির আলোচনাকালে বক্তব্য দিচ্ছে দলনেতা-১ জুনাইদ আল হাবিব

জয়নাল আবেদিন নামে আরেক সদস্য তার বক্তব্যে বলে, “প্রকৃতিতে সৃষ্টি হওয়া আজকের দক্ষিণা বাতাস আমার হৃদয়কে নাড়া দিয়েছে। যে দিকেই তাকালাম বাতাসে গাছের পাতা নাড়াচ্ছে আর আমি তার দিকে তাকিয়েই রইলাম।

সদস্য নাজিম হোসেন বললো, “ফুলের সুভাসে শোভিত, প্রকৃতির এই নতুন সাজ অনেককে যেন কবি করে তুলেছে বর্তমান সময়ে।”

সদস্য সাকিব আল আমিন হাসান বললো,”আলোকযাত্রা দলের এই প্রকৃতি দেখা কার্যক্রমের মাধ্যমে নতুনভাবে নতুন কিছু শিখতে পারলাম। বিশেষ করে শৃঙ্খলাবদ্ধভাবে প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ।

সদস্য জোবায়ের হোসেন রুবেল বললো, “শহরের বড় বড় দালান, জলাবদ্ধতা, প্রকৃতির অন্যরকম সাজ। এগুলো কিছু ভালো আবার কিছুটা মন্দ। আমাদের মন্দটা পরিহার করে সচেতন হয়ে পরিবেশ সংরক্ষণে নিজেকে উদ্যোগ নিতে হবে।

সদস্য রেদোয়ান আহমেদ বলেছে, “নর্দমাগুলোর বেহাল অবস্থা আমাদের পরিবেশকে আরো দূষিত করেছে। আমরা এর প্রতিকার চাই। এজন্য সরকার ও আমাদের এগিয়ে আসতে হবে।

উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য মোঃ আমির হোসাইন বলেন, “প্রকৃতির দৃশ্য এবার কল্পনা করে অনুভব নয়, এবার কাছ থেকে তা দেখলো আলোকযাত্রা দলের সদস্যরা। যা দেখে আমার খুবইভালো লাগলো। তোমরা প্রকৃতি দেখ এবং প্রকৃতি ও পরিবেশ সংরক্ষণে সজাগ হও।

//প্রতিবেদন/৩০০৩২০১৭//


এ বিভাগের আরো খবর...
‘কুকরির জনারণ্যে সম্প্রীতির সুবাতাস’ -আবুল হাসেম মহাজন ‘কুকরির জনারণ্যে সম্প্রীতির সুবাতাস’ -আবুল হাসেম মহাজন
বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক বরগুনায় বাণিজ্যিক সূর্যমুখী চাষে লাভবান কৃষক
পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন পাইকগাছার পড়ুয়ারাদের প্রকৃতিপাঠ, সবুজে গড়ছে জীবন
উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প উপকূলের উদীয়মান সংবাদকর্মী ছোটন সাহা’র ছুটে চলার গল্প
কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’ কমলনগরে পড়ুয়াদের সবুজ জগত, অনুপ্রেরণায় ‘সবুজ উপকূল’
শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন শ্যামনগরে পড়ুয়ারা গড়ে তুলেছে পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলন
জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল জনতার প্রিয় মানুষ এমপি মুকুল
একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’ একুশে বইমেলায় সাংবাদিক ছোটন সাহার ‘মেঘের আঁধারে’
‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার ‘সমৃদ্ধশালী মডেল ঢালচর গড়তে চাই’ : আবদুস সালাম হাওলাদার
কুয়াকাটায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত কুয়াকাটায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত

‘প্রকৃতি দেখা কর্মসূচি’ পালন করলো আলোকযাত্রা লক্ষ্মীপুর দল
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)