কী করতে চাই

কী করতে চাই

উপকূলের অবাধ তথ্য-প্রবাহ নিশ্চিত করাই আমাদের লক্ষ্য। এজন্য এই উদ্যোগের সঙ্গে স্থানীয় সাংবাদিক, স্কুল-কলেজের ছেলেমেয়ে, তৃণমূলের নাগরিক গোষ্ঠী, শিক্ষক, গবেষক, উন্নয়ন কর্মীসহ উপকূল সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পর্যায়ের পেশাজীবীদের সম্পৃক্ত করা হচ্ছে।

তথ্য আদান প্রদানের লক্ষ্যে ঢাকায় কর্মরত উপকূলের সাংবাদিকদের পাশাপাশি এই উদ্যোগে সম্পৃক্ত উপকূলের জেলা ও থানা পর্যায়ের সাংবাদিকগণ। সম্পৃক্ত থাকছেন বিচ্ছিন্ন জনপদে বসবাসকারী বিভিন্ন পেশার নাগরিকেরা। তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হবে কেন্দ্র থেকে। আবার তারা নিজেরাই লিখবেন নিজেদের সমস্যার কথা। উপকূলের তথ্য প্রচারের এই উদ্যোগের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে উপকূলের সার্বিক উন্নয়ন। অবাধ তথ্য প্রবাহ কোনো অবহেলিত অঞ্চলকে এগিয়ে নিতে পারে। অন্ধকারে ছড়িয়ে দিতে পারে আলোর চ্ছটা।

‘উপকূল বাংলাদেশ’ উপকূলের সামগ্রিক চিত্র বিভিন্ন মহলে পৌঁছে দিতে চায়। এর মাধ্যমে উপকূলের খুঁটিনাটি বিষয় আরও সুনির্দিষ্টভাবে সর্বত্র পৌঁছে যাবে বলে আমাদের বিশ্বাস। উপকূল অঞ্চলের একটি চোখ হিসাবে দেখা যেতে পারে এটিকে। সরকারি-বেসরকারি উন্নয়ন কর্মকান্ড থেকে শুরু করে বিভিন্ন ক্ষেত্রে এ উদ্যোগ ‘ওয়াচডগ’-এর ভূমিকা পালন করবে। আগেই এতকিছু বলতে চাইনা।

আমরা বড় করে ভাববো, কিন্তু শুরু করেছি ছোট দিয়ে। এই উদ্যোগ আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে ২০১০ সালের ১৫ নভেম্বর প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড় ‘সিডর’-এর তৃতীয় বার্ষিকীতে। আমাদের প্রত্যয় উপকূলের দর্পন হয়ে সবার সহযোগিতা নিয়ে সামনে আগানোর।


কী করতে চাই
(পাতাটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet